Uncategorized

আমি খেলতে চাই, দলের সঙ্গে থাকতে হবে: আইসিউতে ডাক্তারকে রিজওয়ান

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান

ছিলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। কিন্তু সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে

ম্যাচের আগেই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এই পাকিস্তানি ওপেনার। তার শারীরিক অবস্থার এতটাই অবনতি ঘটে যে তাকে নিতে হয়েছিল নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ)। সেখানে দুদিন থাকতে হয় রিজওয়ানকে। সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাকিস্তান ৫ উইকেটে হেরে গেলেও পাকিস্তানের হয়ে ৫২ বলে ৬৭ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন

মোহাম্মদ রিজওয়ান। আইসিইউ থেকে মাঠে এসে রিজওয়ানের খেলার বিষয়টি নাড়া দিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বকে। মাঠে নামতে কতটা অদম্য ইচ্ছাশক্তি আর তাড়না ছিল পাকিস্তানি ওপেনারের মনে, তা বোঝা যাবে আইসিইউতে তার চিকিৎসা করা ভারতীয় চিকিৎসকের বক্তব্যে। সেমিফাইনালের আগের দিন রিজওয়ান ও শোয়েব মালিকের হালকা ফ্লু ছিল বলে টিম চিকিৎসক দল জানায়। তারা অনুশীলনও করেননি। তবে ম্যাচের দিন তারা ফিটনেস টেস্টে উতরে যান এবং ম্যাচটি খেলেন। আইসিইউতে রিজওয়ানের চিকিৎসা করার সময় দেখেছেন, মাঠে নামার জন্য কতটা ছটফট করছিলেন তিনি। তার দ্রুত সেরে ওঠাকে অলৌকিক বললেন পালমোনোলজি স্পেশালিস্ট ডা. শাহীর সাইনালাবদিন। খালিজ টাইমস এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তারা জানায়, রিজওয়ান বারবার ডাক্তারকে বলছিলেন, ‘আমি খেলতে চাই এবং দলের সঙ্গে থাকতে হবে।’ শাহীরের উদ্ধৃতি দিয়ে তারা লিখেছে, ‘তিনি ছিলেন শক্তিশালী, দৃঢ়প্রতিজ্ঞ এবং আত্মবিশ্বাসী। তিনি যত দ্রুত সুস্থ হয়েছেন, তাতে আমি আশ্চর্য হয়েছি।’ শাহীরের মতে, ম্যাচের আগে রিজওয়ানের সেরে ওঠা ও ফিটনেস ফিরে পাওয়া ছিল এক কথায় অবাস্তব। এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে অন্য যে কারো এক সপ্তাহ লাগার কথা। কিন্তু রিজওয়ানের শারীরিক ফিটনেস ও সহনশীলতার মাত্রা তাকে দ্রুত সুস্থ করে তুলেছে। ওই চিকিৎসক জানান, হাসপাতাল থেকে ছাড়ার পাওয়ার পর রিজওয়ান সাইন করা একটি জার্সি উপহার দিয়েছেন তাকে।

Related Articles

Back to top button