Uncategorized

আলমডাঙ্গা উসমানপুর মাঠে ৭ম শ্রেনীর দুই ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষন

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার প্রাগপুর মাদ্রাসার ৭ম

শ্রেণিতে পড়ুয়া দু‘বান্ধবীকে রাতে মোবাইলফোনে ডেকে নিয়ে

ধর্ষন করেছে দু‘বন্ধু। গত রবিবার রাত ৮টার দিকে ওসমানপুরের

নিশান তাদের দুবান্ধবীকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী কানাপুকুর পাড়ে নিয়ে গিয়ে দুবন্ধু ধর্ষণ করে রাত দুটোর সময় আবার বাড়ি পৌঁছে দেয়। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে আলমডাঙ্গা থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে আলমডাঙ্গা থানায় ধর্ষন মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। জানা যায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার প্রাগপুর গ্রামের রেজাউলের মেয়ে ও প্রতিবেশী শামসুদ্দিনের মেয়ে স্থানীয় মাদ্রাসার ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী। ৪ মাস আগে তাদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে

উঠে পার্শ্ববর্তী ওসমানপুর গ্রামের ইয়াকীন আলীর ছেলে আশিক (১৭) ও তার বন্ধু একই গ্রামের আনারুল ইসলামের ছেলে নিশান (১৭)। গত রবিবার রাত ৮টার দিকে নিশান তার প্রেমিকাকে মোবাইলফোনে রিং দিয়ে দ্রুত তার বান্ধবীকে নিয়ে বাড়ির বাইরে আসতে বলে। দুবান্ধবী বাইরে বের হলে তাদেরকে মোটর সাইকেলে তুলে নেয় নিশান। পরে ওসমানপুর-হারদী মাঠের ভেতর অবস্থিত কানাপুকুর নামক স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে পূর্ব থেকে অবস্থান করছিল আশিক। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দু’বন্ধু তাদের দুই প্রেমিকাকে উপর্যূপরি ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে রাত দুটোর দিকে নিশান তার মোটরসাইকেলে দুবান্ধবীকে তুলে নিয়ে তাদের বাড়ি পৌঁছে দিয়ে দ্রুত সটকে পড়ে। এ ঘটনায় পরদিন গতকাল সোমবার রাতে দু‘বন্ধুর বিরুদ্ধে থানায় এজাহার করেছে দু বান্ধবী। আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভিকটিমদের আজ সোমবার ডাক্তারি পরীক্ষা করার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Related Articles

Back to top button