Uncategorized

ইতালিতে বাংলাদেশিদের পাসপোর্ট সংশোধনের উদ্যোগ নিচ্ছেন রাষ্ট্রদূত

ইতালিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাসপোর্টের বয়স সংশোধনের জন্য রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ইতালিতে নিযুক্ত

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান এক প্রশ্নের জবাবে যুগান্তরকে এ কথা জানান। গত ২৭ এপ্রিল পাসপোর্ট সংশোধনের মেয়াদ শেষ হয়েছে।

সময়সীমা বাড়ানো হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে রাষ্ট্রদূত বলেন, পাসপোর্টে বয়স সংশোধনের আবেদন গ্রহণের সময়সীমা বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে ইতোমধ্যে দূতাবাস হতে মন্ত্রণালয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। দূতাবাসে ২০২১ সালের ১ জুলাই থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত পাসপোর্ট

সংশোধন সংক্রান্ত প্রায় ৮০০ আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। সম্প্রতিকালে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ ইতালি সফরে এলে বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসানের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন আইজিপি। দূতাবাসে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে পুলিশের মহাপরিদর্শককে অন্য বিষয়ের পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাসপোর্টের তথ্য সংশোধনজনিত জটিলতা

সম্পর্কেও অবহিত করেন রাষ্ট্রদূত। তিনি আরও বলেন, দূতাবাস সর্বদা প্রবাসীদের সেবার জন্য প্রস্তুত। তবে বয়সের ব্যাপারে কেউ যখন একটু বেশি অসত্য প্রকাশ করে, তখন আমাদের আর কিছু করার থাকে না। তা ছাড়া এ ধরনের সংশোধনে দেশের ভাবমূর্তি অনেক ক্ষেত্রে ক্ষুণ্ন হতে দেখা যায়। দালালের খপ্পরে পড়ে যা ইচ্ছে তা করা ঠিক নয়। তিনি এ বিষয়ে সবাইকে সতর্ক হওয়ার আহ্বান করেন। অন্যদিকে জানা

গেছে, কয়েক হাজার বাংলাদেশি এই পাসপোর্টের বয়স সংশোধনের সমস্যায় ভুগছেন। তারা বলেন, এ সমস্যা সমাধান না হলে অবৈধ হয়ে যাবেন তারা। এসব বাংলাদেশি পাসপোর্টের বয়স সংশোধনের জন্য দূতাবাসের কাছে নিয়মিত অনুরোধ করে যাচ্ছেন। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তারা বলেন, বৈধতা পেয়েও একটি পাসপোর্টের জন্য আবার অবৈধ হয়ে যাব। প্রধানমন্ত্রী আমাদের এবারের মতো একটু দয়া করেন। তারা বলেন, অনেক কষ্ট করে এসেছি। সমস্যা সমাধান না হলে আমাদের পরিবার অনেক বিপদের পড়ে যাবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের

পরিপত্র অনুযায়ী সর্বোচ্চ পাঁচ বছর পর্যন্ত সংশোধনের আবেদন গ্রহণ করছে দূতাবাস। আপাতত পাঁচ বছরের বেশি কোনো পাসপোর্টের বয়সের আবেদন দূতাবাস গ্রহণ করছে না।

Related Articles

Back to top button