আলোচিত খবর

ব্রেকিং নিউজ – চুল কেটে ও মুখে কালি লাগিয়ে রাস্তায় ঘোরানো হলো ধর্ষিতাকে

এক গণধর্ষিতাকে অপহরণ করে, তাঁর চুল কেটে, মুখে কালি মাখিয়ে

প্রকাশ্য রাস্তায় হাঁটানোর অভিযোগ উঠল এক দল মহিলার বিরুদ্ধে।

শুধু হাঁটানোই নয়, এই ঘটনায় উল্লাস প্রকাশ করতেও দেখা গিয়েছে তাঁদের! বুধবার (২৬ জানুয়ারি) ভারতের রাজধানী দিল্লিতে এই ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত চার নারীকে আটক করেছে পুলিশ। নির্যাতিতা নারী এক সন্তানের জননী। ঘটনাটি দিল্লির কস্তুরবা নগরের। অভিযোগ, ২০ বছর তরুণী গণধর্ষণিতা হন বেআইনি মদের কয়েক জন কারবারির কাছে। সেই তরুণীকেই এ বার এক তরুণের মৃত্যুর জন্য দায়ী করে তার উপর হামলা চালালেন মহিলারা। তার মাথা কেটে, গলায় জুতোর পরিয়ে,

মুখে কালি লেপে রাস্তায় ঘোরানোর অভিযোগ উঠল ওই মহিলাদের বিরুদ্ধে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল এই ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয় বলে উল্লেখ করে টুইট করেন, ‘অত্যন্ত লজ্জাজনক ঘটনা। অপরাধীরা এত সাহস পেল কোথা থেকে? কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং লেফটেন্যাটন্ট গভর্নর অনিল বাইজলকে আর্জি জানাচ্ছি পুলিশকে এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়ার। দিল্লিবাসী এ ধরনের ঘৃণ্য কাজ এবং অপরাধকে কখনওই বরদাস্ত করবে না।’ গত ১২ নভেম্বর ওই তরুণ আত্মহত্যা করেন। তাঁর মৃত্যুর জন্য ২০ বছরের এই তরুণীকেই দায়ী করেন মৃতের পরিবার। অভিযোগ, এর পরই তরুণীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যান মৃতের কাকা। তাঁকে গণধর্ষণ করা হয়। দিল্লি পুলিশের এক আধিকারিক বলেন, “এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা যে ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে এক জন মহিলার উপর এ ভাবে হামলা চালানো হয়েছে। তাঁর যৌন হেনস্থা করা হয়েছে। এই ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।” এদিকে এই ঘটনায় সরব হয়েছেন দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপারসন স্বাতী মালিওয়াল। তিনি বলেন, ‘২০ বছরের এক তরুণীকে অবৈধ মাদক কারবারিরা গণধর্ষণ করেন। এরপর তার মাথার চুল কেটে, জুতার মালা পরিয়ে, মুখে কালি মাখিয়ে রাস্তায় হাঁটানো হয়। দিল্লি পুলিশকে এ বিষয়ে নোটিশ দিয়েছি। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সব অপরাধীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছি।’ পরে নির্যাতিতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন স্বাতী। ভুক্তভোগী নারী ও তার পরিবারের নিরাপত্তার দাবি জানানো হয়েছে বলেও জানান দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান।সূত্র-আনন্দবাজার।

Related Articles

Back to top button