আলোচিত খবর

সালমানের খামারবাড়িতে বলিউড অভিনেতার মরদেহ পুঁতে রাখা হয়েছে

বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের নাম যেন মামলার সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িত।

কখনো তার বিরুদ্ধে, আবার কখনো তিনি অন্য কারও বিরুদ্ধে মামলা করে

খবরের শিরোনামে এসেছেন। কয়েক দিন আগেই প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা

করেছেন ভাইজান। সালমানের অভিযোগ, পানভেলের ফার্মহাউজের প্রতিবেশী কেতন কক্কর এক ইউটিউব চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তার বিরুদ্ধে মানহানিকর মন্তব্য করেছেন। এ কারণে তিনি মামলা করেছেন। এবার সালমানের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করলেন কেতন কক্কর। এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, ভাইজানের খামারবাড়িতে বলিউড অভিনেতার মৃতদেহ পুঁতে রাখা আছে। ইতোমধ্যে কেতনের সাক্ষাৎকারের অংশবিশেষ আদালতে পেশ করা হয়েছে। সালমানের আইনজীবী জানান, কেতন সাক্ষাৎকারে সালমানের ধর্মীয় পরিচয় টেনে তাকে অসম্মান করতে চেয়েছেন। এমনকি সালমান শিশু পাচার চক্রের সঙ্গে যুক্ত- এমন মন্তব্য করেছেন ওই ব্যক্তি। পুরো

অভিযোগই প্রতিবেশীর কল্পনাপ্রসূত বলে মনে করছেন সালমান খান। তিনি বলেন, কোনো প্রমাণ ছাড়াই এসব অভিযোগ আসলে ওই ব্যক্তির কল্পনা। জমি-সংক্রান্ত মামলায় জড়ানোর কারণেই আমার বিরুদ্ধে এ রকম অপমানজনক কথা বলেছেন তিনি। আমার ধর্মও টেনে আনা হচ্ছে। আমার মা একজন হিন্দু, আমার বাবা মুসলিম, আমার ভাইয়েরা হিন্দু মেয়ে বিয়ে করেছেন। আমরা সব ধর্মের সব অনুষ্ঠান পালন করে থাকি। জানা যায়, সালমানের খামারবাড়ির পাশে এক খণ্ড জমি কিনতে চেয়েছিলেন কেতন কাক্কর। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তিনি তা পারেননি। এরপরই সালমান ও কেতনের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। কেতনের দাবি, পুরো বিষয়ের পেছন থেকে কলকাঠি নেড়েছেন সালমান খান।

Related Articles

Back to top button