Uncategorized

আফ্রিদির ‘শয্যাসঙ্গিনী’ হয়ে আলোচনায়, দেহব্যবসার দায়ে গ্রেফতার

পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি কিংবা বলিউড তারকা সালমান খান;

তাদেরকে জড়িয়ে একাধিকবার আলোচনায় এসেছেন মডেল-অভিনেত্রী

আরশি খান। গত দু-তিন বছর ধরে আরশির নাম খুবই পরিচিত হয়ে উঠেছে। ইনস্টাগ্রামেও ২.২ মিলিয়ন ফলোয়ার। তবে সবচেয়ে বেশি পরিচিতি পেয়েছেন ‘বিগ বস’-এর দুটি মৌসুমে অংশ নিয়ে। আরশি খান মুম্বাইয়ের ছোটপর্দার জগতে পরিচিত মুখ। তবে আরশি কিন্তু ভারতে জন্মাননি। তিনি প্রকৃতপক্ষে আফগানিস্তানের মেয়ে। চার বছর বয়সে আফগানিস্তান থেকে মা-বাবার সঙ্গে ভারতে চলে আসেন আরশি খান। তারপর ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভোপালেই তার বেড়ে ওঠা। বিতর্কের কারণেই আরশির পরিচিতি বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। বার বারই নানা মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন আরশি। সেটাই যেন তার হাতিয়ার। তবে অনেকেই জানেন না, আরশি এক জন পেশাদার

ফিজিওথেরাপিস্ট। মডেল-অভিনেত্রী আরশি খান। ছবি: সংগৃহীত মডেল-অভিনেত্রী আরশি খান। ছবি: সংগৃহীত ২০১৫ সালে পাক ক্রিকেটার শাহিদ আফ্রিদির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক রয়েছে বলে দাবি করে বিতর্কে জড়ান তিনি। টুইটারে তিনি লিখেছিলেন, ‘আফ্রিদির সঙ্গে আমার যৌন সম্পর্ক হয়েছে। কার শয্যাসঙ্গিনী হবো, সে ব্যাপারে ভারতীয় মিডিয়ার অনুমতি নিতে হবে নাকি? এটা আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমার কাছে সম্পর্কটা ছিল ভালবাসার।’ ২০১৬ সালে টুইটে আরশি দাবি করেন, তার গর্ভে রয়েছে আফ্রিদির সন্তান। তিনি টুইট করেছিলেন, ‘প্রেমিক হিসাবে আফ্রিদি ১০০-তে ১০০ পাবে। বিছানাতেও দারুণ। আর মাত্র ছ’মাস। তার পর আমি আফ্রিদির সন্তানের জন্ম দেব।’ সন্তানের জন্ম দেওয়ার খবর এখনও অবশ্য শোনা যায়নি।

Related Articles

Back to top button