Uncategorized

৪১ বার জিজ্ঞেস করলেও মামুনুলকে স্বামী স্বীকার করেননি ঝর্ণা

হেফাজত নেতা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে করা ধর্ষণ মামলায় নারায়ণগঞ্জের

আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন তারই কথিত স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণা।

এ মামলার বাদীও তিনি। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা থেকো ২টা পর্যন্ত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হাসানের আদালতে ধর্ষণের ঘটনার বর্ণনাসহ সাক্ষ্য দেন ঝর্ণা। এ সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন মামুনুল হক। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রকিবুদ্দিন জানান, ঝর্ণাকে ৪১ বার প্রশ্ন করে মামুনুল হকের আইনজীবীরা বলেছেন- ‘আপনি মামুনুল হকের স্ত্রী’। জবাবে প্রতিবারই না বলেছেন ঝর্ণা। সাক্ষ্য দেওয়ার সময় ঝর্ণা জানান, স্বামীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু হওয়ার সুবাদে মামুনুলের সঙ্গে পরিচয়

হয়েছিল তার। পরবর্তীতে স্বামীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হলে তাকে নানা জায়গায় নিয়ে যেতেন মামুনুল। এছাড়া তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও করেন। তাকে কোথায় কখন নিয়ে ধর্ষণ করেছেন তাও বলেছেন। ঝর্ণার জবানবন্দি শেষে আসামিপক্ষের আইনজীবিরা তাকে জেরা করেন। এর আগে, কাশিমপুর কারাগার থেকে কঠোর নিরাপত্তায় সকালে মামুনুলকে আদালতে আনা হয়। এ সময় আদালত চত্বরে মামুনুল হকের অনুসারীরা অবস্থান নেন বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর রকিবুদ্দিন আহমেদ। চলতি বছরের ৩ এপ্রিল সোনারগাঁওয়ে রয়্যাল রিসোর্টে ঝর্ণাকে নিয়ে জনতার হাতে অবরুদ্ধ হওয়ার পর স্ত্রী বলে পরিচয় দিয়েছিলেন মামুনুল হক। পরে ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁও থানায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন ঝর্ণা। ৩ নভেম্বর এ মামলায় মামুনুল হকের উপসিস্থিতে অভিযোগ গঠন হয়।

Related Articles

Back to top button